BOYA M1 Microphone এর রিভিউ এবং কিছু প্রশ্নের উত্তর

BOYA M1

রেকর্ডিং এর কাজে আমরা সবসময় একটি ভালো মাইক্রোফোন ব্যবহার করতে চাই। আপনি হয়তো কম দামে ভালো মানের মাইক্রোফোন খুঁজছেন। আপনার জন্য ভালো একটি সমাধান হতে পারে BOYA M1 Microphone। এটি একটি জনপ্রিয় ক্লিপ মাইক্রোফোন। এটি সম্পর্কে আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাদের বিস্তারিত ধারণা দেয়ার চেষ্টা করবো।

পেশাদার ভয়েস আর্টিস্ট, ইউটিউবার ও বিভিন্ন কনটেন্ট নির্মাতাদের কাজে প্রায়ই মাইক্রোফোন দরকার হয়। মোবাইল বা বাজারের সাধারণ মাইক্রোফোনে রেকর্ড করার সময় আশেপাশের সূক্ষ আওয়াজও রেকর্ড হয়ে যায়। ফলে কনটেন্টের মান কমে যায় এবং দর্শকও বিরক্ত হয় । তাই এসব কাজে সবসময়ই একটি ভালো মাইক্রোফোন ব্যবহার করা আবশ্যক। Boya M1 এই কাজের জন্য নিঃসন্দেহে সেরা একটি চয়েজ।

BOYA M1 Microphone রিভিউ

সেরা মানের মাইক্রোফোনগুলোর একটি তালিকা করা হলে, Boya M1 সেই তালিকায় উপরের দিকেই থাকবে। আজকের এই রিভিউ আর্টিকেলে আমরা এই রেকর্ডিং ডিভাইসটি যাঁরা ব্যবহার করেছেন, তাঁদের মতামত, এটির সুবিধা কিংবা অসুবিধা ও স্পেসিফিকেশান সহ বিস্তারিত ধারণা দেয়ার চেষ্টা করবো। এই রিভিউটি পড়ার পর আপনি নিজেই Boya M1 সম্পর্কে একটি যৌক্তিক সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারবেন বলে আমাদের বিশ্বাস। তাই চলুন, দেরী না করে শুরু করা যাক।

BOYA M1 স্পেসিফিকেশান

  • ব্রান্ডঃ BOYA
  • মডেলঃ BOYA BY – M1
  • ফ্রিকোয়েন্সি রেঞ্জঃ ৬৫ হার্জ থেকে ১৮ কিলো হার্জ
  • পোলার প্যাটার্নঃ Omnidirectional বা সর্বতোমুখী
  • ট্রান্সডিউসারঃ ইলেকট্রেট কনডেন্সার
  • ডাইমেনশনঃ Microphone: 18.00 mmH x 8.30 mmW x 8.30 mmH
  • নয়েজ / সিগনাল 74dB SPL
  • আউটপুট ইমঃ 1000 Ohm or less
  • কানেক্টরঃ 3.5mm (1/8”) 4-pole gold plug
  • সেন্সিটিভিটিঃ -30 ডেবিসেবল +/- 3 ডেসিবেল / 0 ডেসিবেল = 1V/Pa, 1 কিলো হার্জ
  • এক্সেসরিজঃ lapel clip, LR44 ব্যাটারি, foam windscreen, 1/4” অ্যাডাপ্টার
  • ব্যাটারী টাইপঃ LR44
  • ক্যাবলের দৈর্ঘ্যঃ ৬ মিটার
  • ওজনঃ ২.৫ গ্রাম
  • পাওয়ার মডিউলঃ ১৮ গ্রাম BOYA

BOYA M1 এর বিভিন্ন সুবিধা

  • এই মাইক্রোফোনটির জনপ্রিয়তার অন্যতম একটি কারণ এর তারের দৈর্ঘ্য। এটির তারের দৈর্ঘ্য প্রায় ৬ মিটার। তাই এই পরিধির মধ্যে আপনি ভালো একটা Distance Range পাচ্ছেন, যা দূর থেকে রেকর্ড করার জন্য সহায়ক।
  • এটি একটি ক্লিপ মাইক্রোফোন। কথা বলার সময় আপনার জামা বা অন্য কোথাও ক্লিপ দিয়ে আটকিয়ে এটি ব্যবহার করতে পারবেন। তাছাড়া ভিডিও তৈরির সময় মাইক্রোফোন লুকিয়ে রাখতে চাইলে, সেক্ষেত্রে এটি জামার অভ্যন্তরে ক্লিপ দিয়ে আটকাতে পারবেন।
  • এতে Built- in Noise Cancellation সুবিধা আছে। তাই ভয়েস রেকর্ড করার সময় চারপাশের নয়েজ বা অপ্রয়েঅজনীয় শব্দ তেমন একটা ক্যাপচার হয় না। এতে করে আপনি আউটপুট হিসেবে ভালো মানের অডিও রেকর্ড পাবেন।
  • এই রেকডিং ডিভাইসের কানেক্টর জ্যাক ৩.৫ মিমি। তাই ডেস্কটপ কম্পিউটার, ল্যাপটপ, স্মার্টফোন, ডি. এস. এল. আর. ক্যামেরা সহ যেকোনো ডিজিটাল আইসিটি যন্ত্রে রেকডিং ডিভাইস হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • এটির সাথে 1/47 inch’র একটি অডিও অ্যাডাপ্টার ফ্রি পাবেন। তাই ৩.৫ মিমি অডিও জ্যাক সাপোর্ট করে না, এমন ডিভাইসেও আপনি মাইক্রোফোনটি ব্যবহার করতে পারবেন।
  • এটির পোলার প্যাটার্ন Omnidirectional বা সর্বতোমুখী। তাই এটি সব দিক থেকেই সমানভাবে অডিও ক্যাপচার করতে পারে।
  • এর High Quality Condenser ভিডিও তৈরির কাজে বিশেষভাবে সহায়ক।
  • এই মাইক্রোফোনে LR- 44 ব্যাটারি রয়েছে। যা দীর্ঘ সময় পর্যন্ত ব্যাক আপ দিতে সক্ষম।
  • Foam windscreen থাকায় সেটাও নয়েজ ক্যানসেলেশনে বিশেষভাবে সহায়ক।

BOYA M1 এর প্যাকেটে যা যা পাবেন

  • BOYA M1 মাইক্রোফোন
  • উইন্ড প্রটেক্টর
  • অ্যাটাচমেন্ট ক্লিপ
  • LR- 44 ব্যাটারি1/4 ইঞ্চি
  • অডিও অ্যাডাপ্টার
  • স্টোরেজ ব্যাগ
  • ইউজার ম্যানুয়াল

BOYA M1 মাইক্রোফোনের দাম

এতক্ষণ ধরে রেকর্ডিং ডিভাইসটির এতসব সুবিধা শুনে আপনি হয়তো ভাবছেন, এটির দাম বুঝি অনেক বেশি! আসলে তা নয়। এটার সুবিধা অনুযায়ী দাম খুবই কম। বাংলাদেশে এর দাম ৯০০ থেকে ১২০০ টাকা।

এটির দাম প্রায়ই পরিবর্তন হয়। তাই একেবারে সঠিক দামটা বলা সম্ভব নয়। আপনি আপনার নিকটস্থ মাইক্রোফোন দোকান থেকে কিংবা দারাজ, বিডিশপ ইত্যাদি অনলাইন সাইট থেকে সর্বশেষ দামটা যাচাই করে নিবেন।

তবে এটি খুবই জনপ্রিয় মাইক্রোফোন হওয়ায় এর নকলেও বাজার সয়লাব। তাই দেখেশুনে ব্র্যান্ডের দোকান থেকে কিনবেন। তবে BOYA M 1 অনলাইন থেকে কেনার ক্ষেত্রে আমাদের প্রথম পছন্দ হলো বিডিশপ ডট কম। অথেনটিক প্রোডাক্ট এর জন্য বিডিশপ একটি বিশ্বস্ত নাম।

BDSHOP থেকে কিনতে ক্লিক করুন BOYA M1 Microphone

ব্যবহারকারীদের মতামত (User Opinion)

মাইক্রোফোনটি যাঁরা ব্যবহার করেছেন, তাঁরা প্রায় সবাই এই মাইক্রোফোনটির ব্যাপারে পজিটিভ রিভিউ দিয়েছেন। বিশেষ করে এর দাম ও সুবিধার বিষয়টি ব্যবহারকারীরা বেশ পছন্দ করেছেন। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মাইক্রোফোন রিভিউ ওয়েবসাইটে এই মাইক্রোফোনটি অনেক বেশি পরিমাণে ফাইভ স্টার রিভিউ পেয়েছে।

মূলত, কনটেন্ট নির্মাতাগণ অডিও রেকর্ডিংয়ের ক্ষেত্রে যে সুবিধাগুলো খুঁজেন, তার প্রায় সবগুলোই এই মাইক্রোফোনটির রয়েছে। তাই এটি ব্যবহারকারীদের আকৃষ্ট করতে পেরেছে।

সুবিধা ও অসুবিধা (Pros & Cons)

সুবিধা

  • এই মাইক্রোফোনটির রয়েছে চমৎকার অডিও কোয়ালিটি।
  • এর প্রায় ৬ মিটার লম্বা তারের কারণে আপনি বেশি দূরত্বেও রেকর্ডিং করতে পারবেন।
  • প্রায় সব ধরনের ডিভাইসে সহজে ফিট করা যায়।
  • এর নয়েজ ক্যানসেলেশান ব্যবস্থা খুবই ভালো।
  • সুবিধা অনুযায়ী দাম খুবই কম।

অসুবিধা

  • রেকর্ডিং এর সময় সঠিক মোডে মাইক্রোফোনকে সেট করে নিতে হবে। অন্যথায়, রেকর্ড সম্পন্ন হবে না। এ সংক্রান্তে বিস্তারিত নির্দেশনা ইউজার ম্যানুয়ালে দেয়া আছে।
  • এটি ব্যাপক জনপ্রিয় একটি মাইক্রোফোন। তাই বাজারে প্রচুর পরিমাণে এই মাইক্রোফোনের নকল ভার্সন পাওয়া যায়। নতুন ক্রেতারা ঠকে যেতে পারেন।

আমাদের রেটিং (Rating)

  • দাম – 5.00
  • ডিজাইন – 4.9
  • সাউন্ড কোয়ালিটি 4.9
  • সব মিলিয়ে- 4.9

BOYA M1 নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন ও তার উত্তর (FAQ)

  • রেকডিং ডিভাইসটি ডিএসএলআর ক্যামেরায় ব্যবহার করা যাবে? এটি যেকোনো কোম্পানির যেকোনো ধরনের ক্যামেরায় ব্যবহার করা যাবে। এতে 3.55 মিলিমিটার অডিও জ্যাক এবং 1/4 ইঞ্চি অডিও অ্যাডাপ্টার আছে।
  • ইউটিউব ভিডিও’র জন্য এটি কেমন?
  • এদেশের হাজার হাজার জনপ্রিয় ইউটিউবার এই রেকর্ডিং ডিভাইসটি ব্যবহার করেন। আপনিও স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • এর ব্যাটারি কতদিন পর্যন্ত ব্যাক আপ দিতে সক্ষম?
  • এতে LR- 44 ব্যাটারি রয়েছে। এটি প্রায় এক থেকে দেড় মাস পর্যন্ত আপনাকে ব্যাক আপ দিতে সক্ষম।
  • মাইক্রোফোনটি কি সুবিধা ও দাম অনুযায়ী আসলেই সাশ্রয়ী?
  • এর উত্তরে বলা যায়, সুবিধা ও দাম অনুযায়ী সাশ্রয়ী হওয়ার কারণেই এই মাইক্রোফোনটি এত বেশি জনপ্রিয়।

শেষ কথা

সকল কনটেন্ট নির্মাতাই চান, তাঁর কনটেন্টের সাউন্ড কোয়ালিটি যেন অনেক ভালো হয়। একটি কনটেন্টে সাউন্ডের মানও দর্শক আকর্ষণে, সার্চ ইঞ্জিন রেংকিং এমনকি কথকের অথরিটি বিল্ড আপ এর ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষভাবে ভূমিকা রাখে। তাই ভালো সাউন্ড কোয়ালিটি পেতে উন্নত ও ভালো মানের রেকর্ডিং ডিভাইসের বিকল্প নেই।

অনেকেই চড়া দামে মাইক্রোফোন কিনেন ও সেট আপ করেন।  সেগুলোও নিঃসন্দেহে ভালো। তবে বেশিরভাগ মানুষই কম দামে ভালো মানের রেকর্ডিং ডিভাইস খুঁজেন। আর এক্ষেত্রে BOYA M1 সবচেয়ে ভালো সমাধান। কারণ, সাধারণ মধ্যবিত্ত ও নিম্ন- মধ্যবিত্ত শ্রেণির উঁচু দামে মাইক্রোফোন সেট আপ করা কষ্টকর। তাই তাঁরা BOYA M1 ব্যবহারের মাধ্যমে সাশ্রয়ী বাজেটে সমস্যার সমাধান করতে পারেন।

সবশেষে এটাই বলতে চাই, বাজারে ভালো ভালো অনেক মাইক্রোফোন রয়েছে। Boya M1 – ই একমাত্র সমাধান নয়। কিন্তু, দাম, রেকর্ডিং এর সময় নানা সুবিধা, নয়েজ ক্যানসেলেশান এবং সেনসিটিভিটি প্রভৃতি বিবেচনায় Boya M1 কে শ্রেষ্ঠ মাইক্রোফোন বলাই যায়। এটি দীর্ঘদিন ধরে মার্কেটে আছে। এই রেকর্ডিং ডিভাইসের ক্রেতাগণের সন্তুষ্টি ও পজিটিভ রিভিউ এর মার্কেট বৃদ্ধিতে ভূমিকা রেখেছে। আপনি যদি সাশ্রয়ী বাজেটের মধ্যে যদি সবচেয়ে ভালো মানের মাইক্রোফোন খুঁজেন, তবে Boya M1 আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো চয়েজ।

এই ছিলো BOYA M1 Microphone নিয়ে আমাদের আজকের রিভিউ আর্টিকেল। মাইক্রোফোনটির বাস্তবতাভিত্তিক রিভিউ আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। ভালো লাগলে শেয়ার করবেন। কমেন্টে আপনার মতামত জানাতে ভুলবেন না। ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven + nineteen =